দলে বিবর্তন আনতে চাই ; পাওলিনহাে - TBNEWS

Breaking

TBNEWS

explore the world news

Post Top Ad

READ ALSO

                                                             

Sunday, 22 October 2017

দলে বিবর্তন আনতে চাই ; পাওলিনহাে

অনুৰ্ধৰ্ব্ব সতেরো যুববিশ্বকাপ ফুটবলে শেষ আটের লড়াইয়ে ব্রাজিল দলের সঙ্গে মুখোমুখি হতে চলেছে জার্মানি যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গণে।। তার আগে শনিবার প্রস্তুতি ম্যাচের শেষে ব্রাজিলের ফুটবলার পাওলিনাহাের বার্তা ছিল ম্যাচ আমাদের জিততেই হবে এবং ট্রফিও নিয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন, দক্ষিণ আমেরিকার নাইজেরিয়া দলটিকে নিয়ে মানসিক দিক দিয়ে একটু চিন্তায় ছিলাম। তবে দারুণ ছন্দময় ফুটবল খেললেও নাইজের দলটিকে শেষ পযন্ত থেমে যেত হল। পাওলিনাহাে আরও বলেন, জার্মানি দলটি ভীষণ শক্তিশালী। তাতে কোনও সন্দেহ নেই। ফুটবল দুনিয়ায় একাধিপত্য আমাদেরও আছে। সেক্ষেত্রে সেরা খেলাটা উপহার দেওয়ায় একমাত্ৰ লক্ষ্য। আমরা অনুশীলন করবার সময়ও পিছনে ফিরে তাকায় নি। দলের পারফরমেন্সের দিকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। ঘাম ঝরিয়ে পরিশ্রম করেছি। এই পরিশ্রমের যথাযোগ্য মুল্য পেতে দলের সমস্ত খেলোয়াড়রাই প্রস্তুত রয়েছে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামতে চলেছি। আমি ২০১৫ সাল থেকে নিজেকে তৈরি করেছি। এই লড়াইয়ে প্রতিদ্বন্ধীতা করবার জন্যে। ফুটবল চাই। আমি একক কৃতিত্বে কেমন পারফরমেন্স করলাম। সেটা আমার কাছে কোনও বড় ব্যাপার নয়, তবে দলগতভাবে না খেললে কোনও গেমেই জেতা অসম্ভব হয়ে ওঠে। সাত নম্বর জার্সিধারী এই ফুটবলার চলতি মরশুমে দুটাে গোল করেছেন। এমনকী দুটাে গোল করতে অন্য ফুটবলারদের সাহায্য করেছেন। তবে তিনি একথা স্বীকার করে নিয়েছেন, ভিডিও কনফারেন্সের মধ্যে দিয়ে বিশ্বকাপানো ফুটবলার নেইমার, গ্র্যাবিয়েল উৎসাহকে বাড়িয়ে দিয়েছেন। তা বলার অপেক্ষা রাখে না। পাওলিনাহাে মনে করেন, খেলার মধ্যে
হারজিত রয়েছে। এটাই খেলার নিয়ম। তবে সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। আমাদের দেশের ঐতিহ্য ফুটবলকে ঘিরে। সেই প্রত্যেক খেলোয়াড়ই ফিট রয়েছে। ফুটবলকে ঘিরে তাদের মধ্যে শৈল্পিক ভাবনা কাজ করে। খুবই ভালো লাগছে যে আমাদের প্রতিটি ম্যাচে বিশ্বের অভিজ্ঞ খেলোয়াড়রাও মনোনিবেশ করেছেন। আপাতত এটুকু বলতে পারি জার্মানির সঙ্গে আমাদের ম্যাচটা দারুণ রোমাঞ্চকর হতে চলেছে। সেই মুহুর্তে ভবিষ্যতের কোনও কথা ভাবতে চাই না। প্রতিপক্ষ দল জার্মানির প্রত্যেক খেলোয়াড় ভীষণ শক্তিশালী। তাদেরকে অবশ্যই সমীহ করে খেলতে হবে। তবে ম্যাচের প্রতি মিনিটেই লক্ষ্য থাকবে গোল করা। পলিহিনহাে মনে করেন, প্রতিটি ম্যাচের চরিত্রের আলাদা একটা বৈশিষ্ট থাকে।

অনেকগুলি ধাপ পেরিয়ে এই জায়গাটা অর্জন করেছি। তাই বলা যায়। এই ম্যাচের ক্ষেত্রে জেতাটা উদ্দেশ্য। আর যুববিশ্বকাপ ফুটবলে ব্রাজিল দলকে চ্যাম্পিয়ন করাটাই মূল মন্ত্র। কলকাতায় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়ার ফলে একটা বাড়তি সুবিধার কথা জানান। তিনি বলেন, এই শহরে ব্রাজিল দলের প্রচুর সমর্থক রয়েছে। যারা ব্রাজিলের হয়ে গলা ফাটাবে। জন্যে ইন্ধন জোগাবে। মাঠে সমর্থকদের প্রত্যাশামত সাফল্য তুলে দেওয়াটাই হবে আমাদের কর্তব্য। যে কোনও কঠিন ম্যাচের ক্ষেত্রে এটা হল ইতিবাচক দিক। পাওলিনহােকে ইউরোপিয়ান লিগে তার অংশগ্রহণ করার ক্ষেত্রে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, বিশ্বফুটবলের প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে বড় পাওনা হল ইউরোপিয় দলে নিজের নাম লেখানো। সেরা ও বাছাই করা ফুটবলারদের এই লিগে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়। এটা যে কোনও ফুটবলারের কাছে একটা বড় সুযোগ। সারা বিশ্বে ফুটবল খেলার মধ্যে দিয়ে ফুটবলপ্রেমিদের কাছে অতি সহজে পে7ৗছে যাওয়া। নিজের দক্ষতার উপর সেই বিষয়টি সম্পূর্ণ নির্ভরশীল। তবে এখনই এ ব্যাপারে কিছু ভাবতে চাই না। সেকথা ভবিষ্যত বলবে। নিজেদের মনকে শান্ত রেখে জার্মানির ম্যাচটায় অংশগ্রহণ করে জয় তুলে নিতে চায়। যা আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যকে একধাপ এগিয়ে দেবে। এ যুববিশ্বকাপের আসর ব্রাজিল দলের তরুণ ধরতে বিশেষ সহায়তা করেছে। এটা দলের কাছে বড় পাওনা। পর্তুগিজের তারকা ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো পাওলিনহোর দারুণ প্রশংসা করেছেন। তিনি খুব পরিশ্রমী এবং অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেকে উন্নত ফুটবলার হিসেবে গড়ে তুলতে আগ্রহী। তিনিই দলের ভবিষ্যতের কান্ডারি।যা ফুটবলের দুনিয়া ও সাম্বার দেশ নামে পরিচিত ব্রাজিল দলের ঐতিহাকে অটুট রাখবে।
twitter- ---------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- If You have any Questions or Query You can freely ask by put Your valuable comments in the COMMENT BOX BELOW আপনার যদি কোনও প্রশ্ন থাকে তবে আপনি নিচে COMMENT BOX এ আপনার মূল্যবান মন্তব্যগুলি করতে পারেন । #Don’t forget to share this post with your friends on social media

No comments:

Post a Comment

thanks for the comment

READ ALSO